বাংলা কবিতা

আলো

চোখের আলো, দিনের আলো আরও আলো মনের আলো ছাড়া অন্ধ জীবন, আলোয় সর্ব জোড়ের। আঁধার ছাড়া আলোয় আঁধার, তাইতো আলো ভালো, দু’নয়নের আলো ছাড়া, জীবনের সবই যেন কালো।

মনের কথা

মনে মনে ভাবি- তুমি মোর সবই আছো হৃদয় জুড়ে, বন্ধ করলে আখি- শুধুই তোমা দেখি খুজে ফিরি ভুজান্তরে।

তোমা প্রতীক্ষা

অঝরে ঝরছে বারি, এ যেন গগনের আজাহারী চাইছে সবাই ভিজতে সেথাই, পাচেছ মজা ভারি, চাইনা আমি ভিজতে কভূ, অঝরে ঝরছে তবুও এ যেন কান্না আমারই, জানেন যাহা মম প্রভু।

বসে আছি তোমা তরে

ভুলে গেলে আমায় তুমি করে এ হৃদয় হরন, তবুও নিঠুর তোমা আশায় চঞ্চলা এ মন। চোখের আড়াল রেখে আমাই করলে মনের আড়াল, আমায় ছেড়ে তাই দুরে গেলে পাইনা তোমা নাগাল।

লাগামহীন

দ্রব্যমূল্যের পগলাঘোড়া ইচ্ছামত চলছে ছুটে নির্লিপ্ত উপদেষ্টারা ব্যার্থ হয়ে হাপিয়ে উঠে,

রক্তচোষা

শ্রমিকরা শুধু শ্রম বিকায় শুধু ন্যায্য মূল্যের আশায়। কিন্তু কি পাচ্ছে তারা? তারা রয়েছে শত কবিতায়, তাতে তাদের কি আসে যায়? না খেয়ে যদি মরে তারা।

স্বপ্ন ভাঙ্গনের বৃত্ত

জানি, আমায় পেতে ইচ্ছা করে তোমার ঐ বক্ষ নীড়ে, আমার পানে চেয়ে থাক আমারই অগোচরে, কেন? তুমি দাওনা ধরা আমার উষ্ণ ভুজান্তরে। যদি আমায় তুমি ভালবাসো তবে দুরেই কেন? কাছে এসো, এসে নাইবা তুমি বললে কথা আমার পানে চেয়ে হাসো, যদি আমায় চাও আপন করে তবে একটুখানি ভালবাসো।

নষ্ট

সবার চোখে সবার মুখে আজি আমি নষ্ট, কেউ বোঝে না, কেউ জানে না কি যে আমার কষ্ট। নষ্ট ছেলে ঐ যে চলে, হেয় সবার দৃষ্টি, ঘৃণা চোখে চেয়ে চেখে তবুও আমি কষ্টি।