বাংলা কবিতা

কবিতার উত্স

এ হৃদয়ের সব কথারাশি, কবিতা করে লিখছে মসি, তোমার কথা ভেবেই একাকী রাতে লিখতে বসি। যখন কেহ নেইকো সাথে, গভীর এই জোসনা রাতে, শুধূই নিশাকর আছে জেগে নিঃশ্ব আমায় সঙ্গ দিতে।

তোমারই কবিতা

আকাশের পানে চেয়ে দেখ মুখটি তুলে চাঁদখানি কেমন করে পড়েছে হেলে। জোসনার আলোই তোমা উঠোন জুড়ে তোমার সাথে বসে আছি নিশিকাল ধরে।

ধ্রুবতারা

মোদের আজো হয়নি দেখা হয়নি জানাশোনা, শুধুই চলে কথা বলা, কথাই স্বপ্ন বোনা। আমাই তুমি স্বপ্ন দিলে, দিলে নতুন নাম, তোমার জীবনে ধ্রুবতারা হয়ে রইলাম।

বিরহ

যারে আমি বেসেছি ভাল সেতো আমার নয়, তবুও তার বিরহে কেন- কাদে এই হৃদয়?

অচেনা বন্ধু

জানা নেই শোনা নেই তবুও হয় যদি বন্ধুত্ব শুধুই কথাতে যদি মেটাতে পারে সব দুরত্ব- তবে হোক না এমন, হয়তো তোমার সাথে দেখা হবে নাকো কভু আমার স্মৃতিপটে চিরদিন তুমি থাকবে তবু যেমন আছো এখন।

নারী

নারী————– অগোচরে কেন তুমি ফেল নেত্রবারী? সোনার পিঞ্জরে বসে তুমি চাইছো প্রণয়, কার পানে চেয়ে শুধু ক্ষয়েছো সময়?

ব্যবধান

নীতি ও দূর্নীতির মাঝে কতটাই ব্যবধান! দু’‌টা এতই কাছাকাছি এসেছে যেন হয়েছে সমান। আসল-নকল, সাদা-কালো এবং ভাল-মন্দ, সবই আজ এসেছে কাছে- নেই কোন দন্দ।

প্রেম ও ভালবাসা

প্রেম কাকে বলে জানিনা আমি- নর-নারীর কামনা, বাসনা নাকি পাগলামী? ভালবাসা প্রেম ভিন্ন যদি হয়, যা প্রেম জেনেছি তা ভুল নিশ্চয়।

হিডেন হাঙ্গার

ক্ষুধা কি আর লুকিয়ে রয় চার দেয়ালের পরে তাইতো এসে লাইনে দাড়ায় লজ্জা শরম ছেড়ে। কেউ না দেখার আগে গিয়ে কিনতে হবে চাল তাইতো উঠি ভোর বেলাতে, আসি সকাল সকাল।